সুপার সাইক্লোন ‘আয়োটা’র আঘাতে বিধ্বস্ত নিকারাগুয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় ‘ইটা’র প্রভাব না কাটতেই মাত্র দু’সপ্তাহের ব্যবধানে ভয়াবহ সুপার সাইক্লোন ‘আয়োটা’র আঘাতে বিধ্বস্ত হয়েছে মধ্য আমেরিকার দেশ নিকারাগুয়া। ভয়াবহ এই ঘূর্ণিঝড়ে ঘর-বাড়ি হারিয়েছে হাজার হাজার বাসিন্দা। তবে ক্ষতির পরিমাণ এখনও অস্পষ্ট কারণ শক্তিশালী এই ঝড়ের প্রভাবে অঞ্চলটির বেশিরভাগ বিদ্যুৎ, টেলিফোন এবং এবং ইন্টারনেট পরিষেবা বিচ্ছিন্ন রয়েছে। এছাড়া প্রবল বাতাসে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেতার সম্প্রচারও।

মঙ্গলবার আয়োটার প্রভাবে উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় নিকারাগুয়ায় উড়ে গেছে বাড়িঘরের ছাদ, উপড়ে গেছে বৈদ্যুতিক খুঁটি, পাম গাছ। সোমবার রাতে ঘণ্টায় ১৫৫ মাইল বাতাসের বেগ নিয়ে নিকারাগুয়ার ওপর দিয়ে বয়ে যায় আয়োটা। বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ১৭১ কিমি বা ১০৬ মাইলের বেশি হলে সেটা ‘সুপার সাইক্লোন’।

সকাল ৬ টার দিকে ঝড়ের শক্তি কমে বাতাসের বেগ নেমে আসে ঘণ্টায় ৮৫ মাইলে। এরপর ঝড়টি নিকারাগুয়ার উত্তরাঞ্চল পার হয় বলে জানিয়েছে ন্যাশনাল হ্যারিকেন সেন্টার।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নিকারাগুয়ার প্রায় ৪০ হাজার বাসিন্দাকে অন্যত্র সরে যেতে বলা হয়েছে। তবে এর প্রভাবে উপকূলীয় বহু এলাকা ২০ ফুট উঁচু পানিচ্ছ্বাসে তলিয়ে যাওয়ার ঝুঁকি রয়েছে।

আয়োটার প্রভাবে হন্ডুরাসেও প্রবল বৃষ্টিপাত এবং বন্যার আশংকায় ৮০ হাজার বাসিন্দাকে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যেতে বলা হয়েছে। এর প্রভাবে হন্ডুরাস, নিকারাগুয়া, গুয়েতেমালা ও বেলিজে প্রবল বৃষ্টিপাত হতে পারে বলে সতর্ক করেছে স্থানীয় আবহাওয়া অফিস। অতিবৃষ্টির কারণে কবলিত এলাকাগুলোতে আকস্মিক বন্যা দেখা দিতে পারে। এ সময় পানির উচ্চতা পাঁচ থেকে ১০ ফুট পর্যন্ত বৃদ্ধি পেতে পারে বলে সতর্ক করেছে এনএইচসি।